চার মাসে ধর্ষণ হত্যা নির্যাতন দেড় হাজার

প্রকাশিত :১৭.০৫.২০১৭, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : দেশে উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত চার মাসে দেশে প্রায় দেড় হাজার ধর্ষণ, হত্যা ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।
বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ সংগঠনটির তথ্যানুযায়ী, দেশে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত চার মাসে প্রায় দেড় হাজার ধর্ষণ, হত্যা ও নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে ২৫৮টি ধর্ষণ ও ৫৫টি গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় ১৫ জনকে। ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটে ৬০টি।

২০১৭ সালের প্রথম চার মাসে ধর্ষণ, গণধর্ষণ, অ্যাসিড নিক্ষেপ, নারী ও শিশু পাচার, যৌন নিপীড়ন, আত্মহত্যা, বাল্যবিয়ে, অপহরণ ছাড়াও বিভিন্নভাবে এক হাজার ৫৬৬ নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। জানুয়ারিতে ৫৮, ফেব্রুয়ারিতে ৬২, মার্চে ৭১ ও এপ্রিল মাসে ৬৭ নারী ধর্ষণের শিকার হয়।

অন্যদিকে, গত বছর ৮৪০ নারী ধর্ষণের শিকার হয়। এর মধ্যে বছরের প্রথম চার মাসে (জানুয়ারি-এপ্রিল) ২৮০ নারী ধর্ষণের শিকার হয়। এ ছাড়া এ বছরের জানুয়ারি মাসে ১৪, ফেব্রুয়ারিতে ১৩, মার্চে ১৪ ও এপ্রিলে ১৪ নারী গণধর্ষণের শিকার হয়। ২০১৬ সালে মোট গণধর্ষণের ঘটনা ছিল ১৬৬টি। এর মধ্যে বছরের প্রথম চার মাসে ৪১ নারী গণধর্ষণের শিকার হয়েছিল।

মহিলা পরিষদ আরও জানায়, চলতি বছরের জানুয়ারিতে চারজন, ফেব্রুয়ারিতে চারজন, মার্চে তিনজন ও এপ্রিলে চার নারীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনা ঘটে। ২০১৬ সালের প্রথম চার মাসে এমন ঘটনার সংখ্যা ছিল পাঁচটি। গত বছর ৪৪ নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। এ ছাড়া ২০১৭ সালের প্রথম চার মাসে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটেছে ৬০টি। এর মধ্যে জানুয়ারিতে ১২, ফেব্রুয়ারিতে ১৬, মার্চে ২০ ও এপ্রিল ১২ নারী ধর্ষণচেষ্টার শিকার হয়েছে। গত বছর প্রথম চার মাসে এই সংখ্যা ছিল ৪২। এ বছর জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত নারীদের শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটে ২৬টি। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ৪২টি।

সংগঠনটির তথ্যানুযায়ী আরও জানা গেছে, চলতি বছরের প্রথম চার মাসেই যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ৫৬টি। ২০১৬ সালে এই সংখ্যা ছিল ৫১। সাম্প্রতিক সময়ে ধর্ষণের বিচার না পেয়ে গাজীপুরের শ্রীপুরে শিশুকন্যাসহ চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করে এক বাবা। এ ছাড়া গত ৬ মে রাজধানীর বনানী থানায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা হয়।

 

 

আ-সা/ছামিউল/জাতীয়