ধর্ষণ মামলার আসামি নাঈম আশরাফ ৭ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত :১৮.০৫.২০১৭, ৪:৩০ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামি

আবদুল হালিম ওরফে নাঈম আশরাফের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ জাম্মান এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এদিন তাকে ঢাকা সিএমএম আদালতে হাজির করে

মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের পুলিশ পরিদর্শক ইসমত আরা এমি।

এর আগে, বুধবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেন, ‘মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে পুলিশ সদর দফতরের

একটি বিশেষ টিম অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।’

১১ মে সিলেট থেকে এ মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদসহ দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়। এর চারদিন পর ১৫ মে রাজধানীর

নবাবপুর ও গুলশান-১ থেকে গ্রেফতার হন মামলার অপর দুই আসামি সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী আজাদ (রহমত)।

প্রসঙ্গত, ২৮ মার্চ বন্ধুর সঙ্গে জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে বনানীর ‘দ্য রেইন ট্রি’ হোটেলে ধর্ষণের শিকার হন দুই বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া তরুণী।

ওই ঘটনার প্রায় ৪০ দিন পর গত ৬ মে বনানী থানায় অভিযুক্ত সাফাত আহমেদ, নাঈম আশরাফ ও সাদমান সাকিফসহ পাঁচজনের

বিরুদ্ধে মামলা করেন তারা।

মামলার আসামি সাফাত আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে। আর সাদমান সাকিফ রেগনাম গ্রুপের মালিকের

ছেলে এবং ওই গ্রুপের পরিচালক।

নাঈম আশরাফ নিজেকে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলের বন্ধু বলে পরিচয় দিয়ে থাকেন। তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জে।

তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় নানা প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে।
আ-সা/ছামিউল/আদালত