turkish-hijab-

দুনিয়াজুড়ে হিজাবি ফ্যাশনের কদর

প্রকাশিত :০৬.০৬.২০১৭, ১২:২৪ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : আজকাল দুনিয়াজুড়ে হিজাবি ফ্যাশনের ক্ষেত্রে দারুণ বিপ্লব ঘটে গেছে। ইউরোপ-আমেরিকাজুড়ে হিজাবি ফ্যাশনের নিত্য-নতুন চমক লাগানো পোশাক-আশাক বাজারে নিয়ে আসছে বিখ্যাত নামকরা সব ফ্যাশন হাউস। হিজাবি স্টাইলের নিত্য-নতুন সংস্করণ বাজিমাত করছে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে শুরু করে ইউরোপ-আমেরিকাতে এ ধরনের ইসলামি ফ্যাশনের কদর বাড়ছে দিনদিন। তেমনি একটি হিজাবি স্টাইলের সাড়া জাগানো রূপ নাবিলারি পাশ্চাত্যেও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বেশ ঢিলেঢালা, ছড়ানো, উঁচু গলার পোশাকগুলো পাওয়া যাচ্ছে নাবিলারিব স্টাইলের বিভিন্ন ধরনের ড্রেস কোডের পোশাক।

শুধুমাত্র মুসলিম নারীদের মধ্যেই নয়, পাশ্চাত্যে এখন বৈচিত্র্যময়, সুন্দর, রুচি স্নিগ্ধ পোশাক হিসেবে হিজাবি স্টাইলের নানা পোশাক বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। মুসলিম নারীদের মধ্যে অতীতে গতানুগতিক রক্ষণশীল ফ্যাশন স্টাইল অনুুসরণের যে প্রবণতা ছিল, তা থেকে কিছুটা সরে আধুনিকতার সংমিশ্রণে হিজাবি ফ্যাশনের নিত্য-নতুন আকর্ষণীয় স্টাইল নিয়ে আসছেন বিখ্যাত সব ডিজাইনাররা। এবারের রমজান মাস উপলক্ষে বিশ্বের সাড়া জাগানো ফ্যাশন ব্র্যান্ড ম্যাগো, জারা, ডিকেএনওয়াই ও টুমি হিলফিগার নিয়ে এসেছে অনেকগুলো দারুণ ডিজাইনের পোশাক। যেখানে ইসলামি ভাবধারার চমত্কার প্রকাশ রয়েছে। এগুলো ফ্যাশন দুনিয়ায় অন্যরকম সাড়া ফেলে দিচ্ছে।

লন্ডনে আয়োজিত ফ্যাশন উইকে তুরস্কের বিখ্যাত পোশাক ব্র্যান্ড মোডানিসা তেমনই কিছু পোশাক উপস্থাপন করেছে। মুসলিম লাইফস্টাইল ‘মো ২০১৭’-তে উঠতি হিজাবি মডেল হালিমা এডেন ৩টি ক্যাটওয়াক শোতে তেমন কিছু নজরকাড়া ডিজাইনের হিজাবি ড্রেস প্রদর্শন করেছেন। আসন্ন ঈদ উত্সবকে সামনে রেখেই এ ধরনের ফ্যাশন শোগুলোর আয়োজন চলছে বিশ্বের বড় বড় শহরগুলোতে। কারণ ঈদ উত্সবে এমনিতেই মুসলিম নারীদের নতুন পোশাক কেনাকাটার ধুম পড়ে যায়। এবারও এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোতে তো বটেই ইউরোপ-আমেরিকাজুড়ে ঈদ উত্সবকে সামনে রেখে ইসলামি ভাবধারার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে তৈরি করা হিজাবি স্টাইলের জামাকাপড়গুলো নানা চমক নিয়ে চলে আসছে একে একে। আর এগুলো বাজারজাত করতে কাজ করছে বিখ্যাত কিছু ব্র্যান্ড ও ফ্যাশন হাউস। এগুলোর মধ্যে টার্বিশ ব্র্যান্ড মোডালিসার কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করতে হয়।

HD Image

এ সময় আধুনিক ফ্যাশন সচেতন নারীদের কাছে মেডানিসার হিজাবি স্টাইলের ৩০ হাজারেও বেশি পোশাক রীতিমতো আবিষ্ট করে তুলেছে তাদের হিজাবি স্টাইলের প্রতিটি ড্রেসে আধুনিকতার উজ্জ্বল প্রকাশের পাশাপাশি ইসলামি ভাবধারার অনুসারী হতে দেখা যাবে। অস্ট্রেলিয়ান ফার্মাসিস্ট কাম ফ্যাশন ডিজাইনার জুলফিয়াতুফাকে এখন ‘দ্য হিজাব স্টাইলিস্ট’ নামে চেনেন সবাই। তার প্রবর্তিত একটি অনন্য পোশাক বিবি রোপ দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। যা নারীর উর্ধাঙ্গ থেকে শুরু করে শরীরের নিচের অংশকে চমত্কারভাবে আবৃত করে রাখে। এখানে ইসলামি ড্রেস রোডের সঙ্গে আধুনিক স্টাইলের অপূর্ব মিশ্রণ রয়েছে। এছাড়াও ইনায়াহ একটি অন্যতম আধুনিক ইসলামি ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে গণ্য হচ্ছে ইদানিং। ৫ বছর আগে নারীদের জন্য আধুনিক ইসলামি পোশাকের অপূর্ব সব কারেকশন নিয়ে বাজারে এসে হইচই ফেলে দিয়েছিল ইনায়াহ। ছড়ানো ম্যাক্সি ধরনের পোশাকের সঙ্গে উঁচুমানের হিজাবের দারুণ কম্বিনেশন ঘটাতে সক্ষম হয়েছে। ইনায়াথ রিয়া মিরান্ডা এই সময়ের আরেকটি জনপ্রিয় এবং আধুনিক ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে গণ্য হচ্ছে। ইন্দোনেশিয়ার ডিজাইনার ইন্দ্রিয়া মিরিন্ডা রিয়া মিরিন্ডা ফ্যামন হাউস চালু করেন। ২০০৯ সালে এটিও মুসলিম ফ্যাশন সচেতন নারীদের আলাদা মনোযোগ আকর্ষণ করে আসছে। চালু হওয়ার পর থেকেই তাদের প্রতিটি ডিজাইনে এক ধরনের অভিনবত্ব ফুটে ওঠে, যেখানে হিজাবি ফ্যাশনের অনন্য প্রকাশ থাকে।

আর আর কালেকশনস একটি অনলাইন ফ্যাশন কোম্পানি গত কয়েকবছর ধরে হিজাবি পোশাক বাজারজাতকরণের চমত্কার সাফল্য দেখিয়েছে। তারা সাধারণ ক্রেতাদের সাধ্যের মধ্যে মূল্য নির্ধারণে করে আধুনিকতার প্রকাশ সমৃদ্ধ হিজাবি পোশাক বাজারে আনছে। এই অনলাইন ফ্যাশন কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা ব্রিটিশ সোমালি উদ্যোক্তা জমিলা লাভ দুবাইয়ে পোশাকগুলোর ডিজাইন করেন। আধুনিকতা, স্মার্টনেস, নতুনত্বর সাথে ইসলামি ভাবধারার চমত্কার সংমিশ্রণ ঘটিয়ে হিজাবি ড্রেসগুলোর চাহিদা বাড়িয়ে তুলেছে আর আর কালেকশনস। তাদের ডিজাইন এক স্টাইল এরইমধ্যে নতুন উচ্চতায় পৌঁছে গেছে।

আরেকটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ড আর সমকালীন আধুনিক পোশাক নিয়ে আসছে বিভিন্ন উত্সবে। প্রধানত ইসলামি ড্রেস কোডের অনুসারী নিত্য-নতুন ডিজাইন উদ্ভাবনে তার দারুণ সৃজনশীলতার প্রমাণ দিয়ে চলেছে গত এক দশক ধরে। এখন বিশ্বজুড়ে মুসলিম ফ্যাশন সচেতন নারীদের মধ্যে জনপ্রিয় একটি ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে আর। আজকাল অনলাইনেও তারা তাদের পোশাক বাজারজাত করছে। যুক্তরাজ্যে তাদের নেটওয়ার্কের বিস্তৃতি ঘটছে খুব শিগগিরই। ঘরোয়া পরিবেশের বাইরে কর্মজীবী নারীদের উপযোগী আধুনিক স্মার্ট, আরামদায়ক হিজাবি ড্রেস নিয়ে আসছে একটি জনপ্রিয় ব্রিটিশ ব্র্যান্ড আমিরার। সোমালি ফ্যাশন ডিজাইনার রোদা আবদি আমিরাম ফ্যাশন ব্র্যান্ডের প্রতিষ্ঠাতা। তার ডিজাইনে করা জাম্পস্যুটগুলো বেশ আরামদায়ক এবং এগুলো পরে চলাফেরা ও কাজকর্ম করা অনেকটাই সহজ স্বাচ্ছন্দ্য। হিজাবেও রয়েছে বিলাসী ভাবের প্রকাশ। ফলে কর্মজীবী মুসলিম নারীদের মধ্যে আমিরাত বেশ জনপ্রিয় ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে এখন। আকর্ষণীয় বিলাসী ধরনের ফ্যাশন ডিজাইনার সুবাদে হিজাব থেকে টুপি, আকর্ষণীয় স্মার্ট কিংবা সান্ধ্যকালীন গাউন প্রভৃতি ড্রেসে রূপকথার আবেশ ছড়িয়ে দিতে তার জুড়ি নেই। ডায়ানা কোটোরের ডিজাইনকৃত পোশাকগুলো নারীর ব্যক্তিত্ব ও রুচিবোধের ভিন্নতা প্রকাশ করে চমত্কারভাবে।

kkkkkk

এছাড়া এক ধরনের প্রথা বিরোধী বিদ্রোহী মনোভাবও ফুটে ওঠে এর মাধ্যমে। ইদানিং সংবাদ শিরোনাম হয়েছে দ্য মডিস্ট। আধুনিকমনস্ক নারীদের রুচি ও পছন্দের কথা বিবেচনা করে ডিজাইনার হালিমা এডেন দারুণ সব স্টাইলের পোশাক বাজারে এনে হইচই ফেলে দিয়েছেন। ২০১৪ সালে যুক্তরাজ্যের ৩ বোন ইসমাহা, আমনা ও সারা মিলে চালু করেন বুনো ডিজাইন কোম্পানি। মূলত মুসলিম নারীদের জন্য আধুনিক ফ্যাশনের পোশাক তৈরি ও জনপ্রিয় করে তোলার চিন্তা-ভাবনা থেকেই তারা কাজ শুরু করেন। তাদের এ লাইন স্মার্ট, দীর্ঘ ও আরামদায়ক ট্রাউজারগুলো আজকাল যুক্তরাজ্যের অনেক মুসলিম তরুণীর কাছে আকর্ষণীয় পোশাক হিসেবে বেশ কদর পেয়েছে হিজাবি ফ্যাশনের ক্ষেত্রে দারুণ বিপ্লব ঘটে গেছে। ইউরোপ-আমেরিকাজুড়ে হিজাবি ফ্যাশনের নিত্য-নতুন চমক লাগানো পোশাক-আশাক বাজারে নিয়ে আসছে বিখ্যাত নামকরা সব ফ্যাশন হাউস। হিজাবি স্টাইলের নিত্য-নতুন সংস্করণ বাজিমাত করছে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে শুরু করে ইউরোপ-আমেরিকাতে এ ধরনের ইসলামি ফ্যাশনের কদর বাড়ছে দিনদিন। তেমনি একটি হিজাবি স্টাইলের সাড়া জাগানো রূপ নাবিলারি পাশ্চাত্যেও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বেশ ঢিলেঢালা, ছড়ানো, উঁচু গলার পোশাকগুলো পাওয়া যাচ্ছে নাবিলারিব স্টাইলের বিভিন্ন ধরনের ড্রেস কোডের পোশাক। শুধুমাত্র মুসলিম নারীদের মধ্যেই নয়, পাশ্চাত্যে এখন বৈচিত্র্যময়, সুন্দর, রুচি স্নিগ্ধ পোশাক হিসেবে হিজাবি স্টাইলের নানা পোশাক বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। মুসলিম নারীদের মধ্যে অতীতে গতানুগতিক রক্ষণশীল ফ্যাশন স্টাইল অনুুসরণের যে প্রবণতা ছিল, তা থেকে কিছুটা সরে আধুনিকতার সংমিশ্রণে হিজাবি ফ্যাশনের নিত্য-নতুন আকর্ষণীয় স্টাইল নিয়ে আসছেন বিখ্যাত সব ডিজাইনাররা। এবারের রমজান মাস উপলক্ষে বিশ্বের সাড়া জাগানো ফ্যাশন ব্র্যান্ড ম্যাগো, জারা, ডিকেএনওয়াই ও টুমি হিলফিগার নিয়ে এসেছে অনেকগুলো দারুণ ডিজাইনের পোশাক। যেখানে ইসলামি ভাবধারার চমত্কার প্রকাশ রয়েছে। এগুলো ফ্যাশন দুনিয়ায় অন্যরকম সাড়া ফেলে দিচ্ছে। লন্ডনে আয়োজিত ফ্যাশন উইকে তুরস্কের বিখ্যাত পোশাক ব্র্যান্ড মোডানিসা তেমনই কিছু পোশাক উপস্থাপন করেছে। মুসলিম লাইফস্টাইল ‘মো ২০১৭’-তে উঠতি হিজাবি মডেল হালিমা এডেন ৩টি ক্যাটওয়াক শোতে তেমন কিছু নজরকাড়া ডিজাইনের হিজাবি ড্রেস প্রদর্শন করেছেন। আসন্ন ঈদ উত্সবকে সামনে রেখেই এ ধরনের ফ্যাশন শোগুলোর আয়োজন চলছে বিশ্বের বড় বড় শহরগুলোতে। কারণ ঈদ উত্সবে এমনিতেই মুসলিম নারীদের নতুন পোশাক কেনাকাটার ধুম পড়ে যায়। এবারও এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোতে তো বটেই ইউরোপ-আমেরিকাজুড়ে ঈদ উত্সবকে সামনে রেখে ইসলামি ভাবধারার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে তৈরি করা হিজাবি স্টাইলের জামাকাপড়গুলো নানা চমক নিয়ে চলে আসছে একে একে। আর এগুলো বাজারজাত করতে কাজ করছে বিখ্যাত কিছু ব্র্যান্ড ও ফ্যাশন হাউস। এগুলোর মধ্যে টার্বিশ ব্র্যান্ড মোডালিসার কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করতে হয়। এ সময় আধুনিক ফ্যাশন সচেতন নারীদের কাছে মেডানিসার হিজাবি স্টাইলের ৩০ হাজারেও বেশি পোশাক রীতিমতো আবিষ্ট করে তুলেছে তাদের হিজাবি স্টাইলের প্রতিটি ড্রেসে আধুনিকতার উজ্জ্বল প্রকাশের পাশাপাশি ইসলামি ভাবধারার অনুসারী হতে দেখা যাবে। অস্ট্রেলিয়ান ফার্মাসিস্ট কাম ফ্যাশন ডিজাইনার জুলফিয়াতুফাকে এখন ‘দ্য হিজাব স্টাইলিস্ট’ নামে চেনেন সবাই। তার প্রবর্তিত একটি অনন্য পোশাক বিবি রোপ দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। যা নারীর উর্ধাঙ্গ থেকে শুরু করে শরীরের নিচের অংশকে চমত্কারভাবে আবৃত করে রাখে। এখানে ইসলামি ড্রেস রোডের সঙ্গে আধুনিক স্টাইলের অপূর্ব মিশ্রণ রয়েছে। এছাড়াও ইনায়াহ একটি অন্যতম আধুনিক ইসলামি ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে গণ্য হচ্ছে ইদানিং। ৫ বছর আগে নারীদের জন্য আধুনিক ইসলামি পোশাকের অপূর্ব সব কারেকশন নিয়ে বাজারে এসে হইচই ফেলে দিয়েছিল ইনায়াহ। ছড়ানো ম্যাক্সি ধরনের পোশাকের সঙ্গে উঁচুমানের হিজাবের দারুণ কম্বিনেশন ঘটাতে সক্ষম হয়েছে। ইনায়াথ রিয়া মিরান্ডা এই সময়ের আরেকটি জনপ্রিয় এবং আধুনিক ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে গণ্য হচ্ছে। ইন্দোনেশিয়ার ডিজাইনার ইন্দ্রিয়া মিরিন্ডা রিয়া মিরিন্ডা ফ্যামন হাউস চালু করেন। ২০০৯ সালে এটিও মুসলিম ফ্যাশন সচেতন নারীদের আলাদা মনোযোগ আকর্ষণ করে আসছে। চালু হওয়ার পর থেকেই তাদের প্রতিটি ডিজাইনে এক ধরনের অভিনবত্ব ফুটে ওঠে, যেখানে হিজাবি ফ্যাশনের অনন্য প্রকাশ থাকে।

আর আর কালেকশনস একটি অনলাইন ফ্যাশন কোম্পানি গত কয়েকবছর ধরে হিজাবি পোশাক বাজারজাতকরণের চমত্কার সাফল্য দেখিয়েছে। তারা সাধারণ ক্রেতাদের সাধ্যের মধ্যে মূল্য নির্ধারণে করে আধুনিকতার প্রকাশ সমৃদ্ধ হিজাবি পোশাক বাজারে আনছে। এই অনলাইন ফ্যাশন কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা ব্রিটিশ সোমালি উদ্যোক্তা জমিলা লাভ দুবাইয়ে পোশাকগুলোর ডিজাইন করেন। আধুনিকতা, স্মার্টনেস, নতুনত্বর সাথে ইসলামি ভাবধারার চমত্কার সংমিশ্রণ ঘটিয়ে হিজাবি ড্রেসগুলোর চাহিদা বাড়িয়ে তুলেছে আর আর কালেকশনস। তাদের ডিজাইন এক স্টাইল এরইমধ্যে নতুন উচ্চতায় পৌঁছে গেছে।

latest-hijab-design-7
আরেকটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ড আর সমকালীন আধুনিক পোশাক নিয়ে আসছে বিভিন্ন উত্সবে। প্রধানত ইসলামি ড্রেস কোডের অনুসারী নিত্য-নতুন ডিজাইন উদ্ভাবনে তার দারুণ সৃজনশীলতার প্রমাণ দিয়ে চলেছে গত এক দশক ধরে। এখন বিশ্বজুড়ে মুসলিম ফ্যাশন সচেতন নারীদের মধ্যে জনপ্রিয় একটি ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে আর। আজকাল অনলাইনেও তারা তাদের পোশাক বাজারজাত করছে। যুক্তরাজ্যে তাদের নেটওয়ার্কের বিস্তৃতি ঘটছে খুব শিগগিরই। ঘরোয়া পরিবেশের বাইরে কর্মজীবী নারীদের উপযোগী আধুনিক স্মার্ট, আরামদায়ক হিজাবি ড্রেস নিয়ে আসছে একটি জনপ্রিয় ব্রিটিশ ব্র্যান্ড আমিরার। সোমালি ফ্যাশন ডিজাইনার রোদা আবদি আমিরাম ফ্যাশন ব্র্যান্ডের প্রতিষ্ঠাতা। তার ডিজাইনে করা জাম্পস্যুটগুলো বেশ আরামদায়ক এবং এগুলো পরে চলাফেরা ও কাজকর্ম করা অনেকটাই সহজ স্বাচ্ছন্দ্য। হিজাবেও রয়েছে বিলাসী ভাবের প্রকাশ। ফলে কর্মজীবী মুসলিম নারীদের মধ্যে আমিরাত বেশ জনপ্রিয় ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে এখন। আকর্ষণীয় বিলাসী ধরনের ফ্যাশন ডিজাইনার সুবাদে হিজাব থেকে টুপি, আকর্ষণীয় স্মার্ট কিংবা সান্ধ্যকালীন গাউন প্রভৃতি ড্রেসে রূপকথার আবেশ ছড়িয়ে দিতে তার জুড়ি নেই। ডায়ানা কোটোরের ডিজাইনকৃত পোশাকগুলো নারীর ব্যক্তিত্ব ও রুচিবোধের ভিন্নতা প্রকাশ করে চমত্কারভাবে। এছাড়া এক ধরনের প্রথা বিরোধী বিদ্রোহী মনোভাবও ফুটে ওঠে এর মাধ্যমে। ইদানিং সংবাদ শিরোনাম হয়েছে দ্য মডিস্ট। আধুনিকমনস্ক নারীদের রুচি ও পছন্দের কথা বিবেচনা করে ডিজাইনার হালিমা এডেন দারুণ সব স্টাইলের পোশাক বাজারে এনে হইচই ফেলে দিয়েছেন। ২০১৪ সালে যুক্তরাজ্যের ৩ বোন ইসমাহা, আমনা ও সারা মিলে চালু করেন বুনো ডিজাইন কোম্পানি। মূলত মুসলিম নারীদের জন্য আধুনিক ফ্যাশনের পোশাক তৈরি ও জনপ্রিয় করে তোলার চিন্তা-ভাবনা থেকেই তারা কাজ শুরু করেন। তাদের এ লাইন স্মার্ট, দীর্ঘ ও আরামদায়ক ট্রাউজারগুলো আজকাল যুক্তরাজ্যের অনেক মুসলিম তরুণীর কাছে আকর্ষণীয় পোশাক হিসেবে বেশ কদর পেয়েছে