rob_meeting_1

আবদুর রবের বাসায় ‘বিকল্প জোট’ গঠনে বৈঠক

প্রকাশিত :১৪.০৭.২০১৭, ২:০৭ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি’র সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসায় ‘বিকল্প জোট’ গঠনে বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের বৈঠক হয়েছে। তবে এটা আ স ম রব আয়োজিত ‘চা চক্র’ ছিল বলে দাবি করেছেন বৈঠকে অংশগ্রহণকারীদের কয়েকজন।
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি’র সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসায় ‘বিকল্প জোট’ গঠনে বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের বৈঠক হয়েছে। তবে এটা আ স ম রব আয়োজিত ‘চা চক্র’ ছিল বলে দাবি করেছেন বৈঠকে অংশগ্রহণকারীদের কয়েকজন।
বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৯টা থেকে শুরু হয়ে রাত ১১টার কিছু আগে আ স ম রবের উত্তরার বাড়িতে বৈঠকটি শেষ হয়।
অবশ্য রাত ৮টা থেকে আমন্ত্রিতরা আসতে শুরু করলে বাড়িটি ঘিরে ফেলে সাদা পোশাকের পুলিশ। দ্রুত বৈঠক শেষ করতে পুলিশ চাপ দেয় বলে অভিযোগ করেছেন বৈঠকে অংশগ্রহণকারীরা।
জানা গেছে, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতৃত্বাধীন দুই জোটের বাইরের বেশ কিছু দলের অন্তত ১৫ জন মূল নেতা ও সংগঠন প্রধান বৈঠকে অংশ নেন। সেখানে বিকল্প একটি রাজনৈতিক জোট করার বিষয়েই মূলত আলোচনা হয়।
বৈঠকে বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি সাইফুল হক, গণফোরামের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সুব্রত চৌধুরী ও আ ও ম শফিউল্লাহ, বাসদের বজলুর রশীদ ফিরোজ, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী এবং নাগরিক সংগঠন সুজনের সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, অনেককেই ডাকা হয়েছিল। অনেকে এসেছেন, অনেকে আসেননি। আমাদের আলোচনায় দেশের সামগ্রিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়।
তিনি বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে বিকল্প একটি জোট করার চেষ্টা করছি। আমরা কিছু কমন বিষয় চিহ্নিত করার চেষ্টা করেছি। বৈঠকের আলোচনা ইতিবাচক। তবে এর ফল পেতে আরো সময় লাগবে।
পুলিশি বাগড়ার বিষয়ে বদিউল আলম মজুমদার বলেন, ‘হঠাৎ করে পুলিশ আসায় আমি বিস্মিত হয়েছি। পুলিশ এসে বলেছে, সভা করতে হলে অনুমতি নিতে হবে, পুলিশকে আগে অবগত করতে হবে।’
এই আয়োজনকে ঈদ পুনর্মিলনী দাবি করে তিনি বলেন, ‘একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে আমরা খাওয়া-দাওয়া করেছি। এ অনুষ্ঠানে এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হবো ভাবিনি।’