fadarea

টমাস বার্ডিচের বিপক্ষে সেমি-ফাইনালে লড়বেন ফেদেরার

প্রকাশিত :১৪.০৭.২০১৭, ৩:০২ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : রজার ফেদেরার শেষ হয়ে গেছেন! হ্যাঁ, চলতি বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে শিরোপা উঁচিয়ে ধরার আগে টেনিস বিশ্বে কথাটা চাউর ছিল বেশ। কিন্তু তিনি যে রজার। ক্যারিয়ারে যুক্তিকে মিথ্যে প্রমাণিত করেছেন অনেকবার। এখন সময়ও যেন তার কাছে পরাজিত। আর মাত্র দু’টি ম্যাচ। জিতলে শুধু ১৯তম গ্র্যান্ড স্লামই নয়, সবচেয়ে বেশি বয়সী হিসেবে অল ইংল্যান্ড ক্লাব মঞ্চে বিজয়ীর হাসি হাসবেন সুইস কিংবদন্তি।

তরে তার আগে সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে হয়তো আজকে। চেক প্রজাতন্ত্রের টমাস বার্ডিচের বিপক্ষে সেমি-ফাইনালে লড়বেন ফেদেরার। জিতে ১১ বারের মতো উইম্বলডনের ফাইনালে উঠে গেলেও অবশ্য অনন্য কীর্তি গড়ার পথ সহজ নয়। কারণ ফাইনালে তার প্রতিপক্ষ হবেন একই দিন কোর্টে নামা দুই সেমি-ফাইনালিস্টের একজন স্যাম কুয়েরি কিংবা মারিন কিলিচ।

তিনজনই ফেদেরারের চেয়ে লম্বা। ফেদেরারের উচ্চতা ছয় ফুট এক ইঞ্চি। বার্ডিচ তার চেয়ে চার ইঞ্চি লম্বা। কুয়েরি এবং কিলিচের উচ্চতাও ছয় ফুট ছয় ইঞ্চি করে। তাই শারীরিকভাবে সুইস তারকার চেয়ে এগিয়ে থাকবেন তারা।

সেমি-ফাইনালে নামার আগে ফেদেরার বলেন, ‘তারা তিনজনই আমার চেয়ে লম্বা এবং শক্তিশালী। আমাকে ভিন্ন পন্থা নিতে হবে। আমার ধারাবাহিকতা রক্ষা করে বলকে কিছুটা ঘুরাতে পারলে তাদের পরাস্ত করা সম্ভব।’ এবারের আসর শুরুর আগেই ফেভারিট ভাবা হচ্ছিল ফেদেরারকে। একে তো খুব হিসেব করে চলতি বছর পুরো ক্লে কোর্ট মৌসুম খেলেননি ১৮ বারের গ্র্যান্ড স্লামজয়ী। এরপর ঘাসের কোর্টেও খেলেছেন দুর্দান্ত। টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত এক সেটও হারেননি তিনি। সার্ভ ব্রেক হয়েছে মোটে তিনবার। ইতিমধ্যে আসর থেকে ছিটকে পড়েছেন বিগ ফোর’র অন্য তিনজন- স্কটিশ অ্যান্ডি মারে, সার্বিয়ান নোভাক জকোভিচ এবং ফরাসি ওপেন জয়ী স্প্যানিশ রাফায়েল নাদাল। তাই ফেদেরারের রাস্তাটা আরো পরিষ্কার মনে হচ্ছে।

তবে সুইস তারকা বার্ডিচকে হালকাভাবে নিচ্ছেন না। চেক তারকার সঙ্গে ২৫ বারের দেখায় ১৮ বার জিতেছেন তিনি। কিন্তু ২০১০ সালের কোয়ার্টার ফাইনালের কথা নিশ্চয়ই ভুলে যাননি ফেদেরার। সেবার চার সেটের খেলায় তাকে হারিয়েই ক্যারিয়ারে প্রথম এবং শেষবারের মতো গ্র্যান্ড স্লামে সেমি-ফাইনালে উঠেছিলেন বার্ডিচ। ফেদেরার তাই সতর্ক, ‘ফেভারিট কিংবা ফেভারিট না, এই আলোচনা এখানে গুরুত্বপূর্ণ নয়। বার্ডিচসহ অন্য তিনজনই খুব জোরের সঙ্গে বল মারতে পারেন। খেলায় আপনারা যেটা দেখতে পাবেন।’ ফেদেরারের চেয়ে চার বছরের ছোট বার্ডিচ ২০০৯ সালের পর প্রথমবারের মতো শীর্ষ দশ বাছাইয়ের বাইরে থেকে উইম্বলডন খেলছেন। কোয়ার্টার ফাইনালে জকোভিচ নিজেকে প্রত্যাহার করে নিলেও প্রথম সেট জিতেছিলেন তিনিই। শেষ ষোলতে অষ্টম বাছাই ডমিনিক থিয়েমকে হারিয়ে শেষ আটে উঠেছিলেন চেক তারকা। তার ওপর গত বছর সেমি-ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতা আছে তার।

সুইস তারকার মুখোমুখি হওয়ার আগে বার্ডিচ বলেন, ‘রজার অসাধারণ টেনিস খেলোয়াড়। তিনি সর্বশ্রেষ্ঠ। তার বিরুদ্ধে খেলা সব সময়ই কঠিন।’ এদিকে প্রথমবারের মতো কোনো গ্র্যান্ড স্লাম আসরের সেমি-ফাইনালে উঠেছেন আমেরিকান কুয়েরি। বছর খানেক আগে জকোভিচকে বিদায় করে দিয়েছিলেন তিনি। এবার তার শিকার হয়েছে নম্বর ওয়ান মারে। তাই সপ্তম বাছাই কিলিচের ফাইনালের পথটাও সহজ হবে না।-সুপারস্পোর্টস