gangoli22

১৬ বছর পর ট্রেনে চড়লেন সৌরভ

প্রকাশিত :১৬.০৭.২০১৭, ৪:১৮ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটে নিজের একটা মূর্তি উন্মোচনে যাচ্ছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলী। যাত্রার জন্য বেছে নিয়েছিলেন ট্রেন। ট্রেনে চড়া নিয়ে হয়তো একটু রোমাঞ্চিতও ছিলেন। প্রায় ১৬ বছর পর ট্রেনে চড়া। টিকিট ছিল শীতাতপনিয়ন্ত্রিত প্রথম শ্রেণির কামরার। কিন্তু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের যুগ্ম সম্পাদক অভিষেক ডালমিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ট্রেনে চড়তেই ভোগান্তির মধ্যে পড়লেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক। টিকিটের নম্বর মিলিয়ে নিজের আসনে বসতে গিয়ে দেখলেন এক ‘ভদ্রলোক’ আগে থেকেই সেটা দখল করে রেখেছেন। গতকাল শনিবারের ঘটনা এটি।
সেই ভদ্রলোককে যতই বোঝানো হোক না কেন, তিনি কিছুতেই বুঝতে রাজি নন। উল্টো ঝগড়া বাধিয়ে দেন সৌরভের সঙ্গে। অবস্থা বেগতিক দেখে সৌরভকে শেষ পর্যন্ত শরণ নিতে হয় রেল পুলিশের (আরপিএফ)।

সৌরভ অবশ্য সেই লোককে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন। কিন্তু কিছুতেই কাজ হয়নি। সৌরভ শেষ পর্যন্ত রণে ভঙ্গ দেন। সেই আসনের আশা ত্যাগ করে চলে যান শীতাতপনিয়ন্ত্রিত কামরারই অন্য একটি আসনে। এসি টায়ার-২-এ শেষ পর্যন্ত আশ্রয় নেন ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম সেরা এই তারকা।
তবে এই ভোগান্তি শেষ পর্যন্ত সৌরভ ভুলেছেন বালুরঘাট পৌঁছে। হাজার হাজার মানুষ স্বাগত জানিয়েছে তাঁকে। সেখানে আট ফুট উঁচু ব্রোঞ্জের মূর্তিটি যে ছিল তাঁর প্রতি মানুষের ভালোবাসারই প্রকাশ।
এত বছর পর ট্রেনে চড়ে খুশি সৌরভ, ‘আমি শেষবার ট্রেনে চড়েছিলাম ২০০১ সালে। প্রায় ১৬ বছর। তাই না?’
মূর্তি উন্মোচনের পর্ব নিয়ে নিজের টুইটারে লিখেছেন, ‘দক্ষিণ দিনাজপুরে কেবল মানুষের মাথাই দেখলাম।’