sleep

আলসেমি কাটাতে যা করবেন

প্রকাশিত :০৫.০৮.২০১৭, ৪:৫৬ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : খাবার খাওয়ার পরই বেশ অলস ভাব আসে। মনে হয় এখন আর কাজ না করে, একটু বসে আরাম করি।

কোথাও শুতে পেলে তো আরো ভাল হত। কিন্তু সেটা বাড়িতে থাকলে ঠিক আছে। অফিসে বা অন্য কোনো কাজে থাকলে কী করে হবে!

যতোই অলসতা হোক না কেন, অফিসে আপনাকে কাজ করে যেতেই হবে। এর জন্য কিছু বিষয়গুলি মেনে চললে দুপুরের আড়ষ্টতা অনেকাংশেই কমা সম্ভব।

গবেষণায় বলা হয়, আমরা যখন খাওয়া শুরু করি, শরীরে শর্করার পরিমাণ বাড়তে থাকে।

খাবার খাওয়া শেষ শর্করার মাত্রা ধীরে ধীরে কমে, এ কারণে শরীরের শক্তি হ্রাস পায় এবং অলসবোধ হতে থাকে।

তাই অলসতা কাটাতে নীচে কিছু উপায়গুলি দেওয়া হল। দেখে নিন-

১. দুপুরে খাওয়ার পর শক্তি বাড়াতে হালকা ব্যায়াম করুন। একটু হাঁটাহাঁটি বা নড়াচড়া করলে শরীরের রক্ত চলাচল বাড়বে।

রক্ত চলাচল ঠিকঠাক হলে শরীরে অক্সিজেন এবং প্রয়োজনীয় পুষ্টি পেশিতে পৌঁছে যায়, এতে শক্তি বাড়ে।

তাই খাওয়ার পর অফিসের ডেস্ক থেকে উঠে ১০ থেকে ১৫ মিনিট একটু হেঁটে আসুন বা হালকা ব্যায়াম করুন।

২. খাওয়ার এক ঘণ্টা পর কফি খেতে পারেন। দুপুরের ভারি খাবারের পর কফি খেলে তা এনার্জি ধরে রাখতে সাহায্য করে।

৩. গবেষণায় বলা হয়, ২০ মিনিট চুইংগাম চিবানো মানসিক উত্তেজনাকে ধরে রাখতে সাহায্য করে। এটি এনার্জি ধরে রাখতে সাহায্য করে ৷

তবে অতিরিক্ত চুইংগাম খাওয়াও ঠিক নয়।

৪. কাজ করতে করতে গান শুনলে কর্মক্ষমতা অনেকটাই বেড়ে যায়।

গবেষকরা বলেন, লাইট মিউজিক এবং রোম্যান্টিক গান শুনলে আপনার মন ভাল থাকবে এবং কাজও ভালভাবে করতে পারবেন।

৫. দুপুরের খাবার খুব তাড়াতাড়ি খাবেন না। অর্থাৎ গোগ্রাসে খাওয়াটা স্বাস্থ্যের পক্ষেও খারাপ। অল্প অল্প করে বেশি সময় ধরে খান।

এতে শরীরে শর্করার মাত্রা বজায় থাকবে এবং অলসতাও আসবে না।

৬. একটানা চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা খালি পেটে থাকা ঠিক নয়।

সঠিক সময়ে দুপুরের খাবার খাওয়া আপনাকে বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে রক্ষা করবে এবং শক্তি বাড়াতেও সাহায্য করবে।