south koria

আগস্টেই মার্কিন ঘাঁটিতে হামলায় প্রস্তুত উ. কোরিয়া

প্রকাশিত :১০.০৮.২০১৭, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা গুয়ামে চারটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার পরিকল্পনা করছে উত্তর কোরিয়া। দেশটি বলেছে, আগস্টের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যেই তাদের প্রস্তুতি সম্পন্ন হবে।
দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ জানায়, পিয়ংইয়ংয়ের নেতা কিম জং-উন এই পরিকল্পনা অনুমোদন করলে হওয়াসং-১২ রকেট জাপানের ওপর দিয়ে গুয়াম থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে সাগরে ফেলা হবে।

উত্তর কোরিয়ার এমন হুমকি-ধমকির পাল্টা জবাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রও। দেশটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উত্তরের যেকোনো ব্যবস্থার মানে হলো তাদের শাসনক্ষমতার শেষ দেখা।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্রদের বিরুদ্ধে যেকোনো যুদ্ধে অবতীর্ণ হলে উত্তর কোরিয়াকে ‘সমূলে উৎপাটন’ করা হবে।
গতকাল বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের গুয়ামে হামলার পরিকল্পনার কথা জানায় উত্তর কোরিয়া। এলাকাটিতে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটি আছে। সেখানে প্রায় এক লাখ ৬৩ হাজার মানুষ বসবাস করে।
বুধবার প্রথম বিবৃতি দেওয়ার পর উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে দ্বিতীয় বিবৃতিতে বলা হয়, দেশটির সামরিক বাহিনী আগস্টের মধ্যবর্তী সময়ের মধ্যে বোমা হামলার পরিকল্পনা সম্পন্ন করবে। এর পর সেটি চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের।
উল্লেখ্য, ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন অবরোধ অনুমোদন দেয় জাতিসংঘ। এই অবরোধকে পিয়ংইয়ং তার দেশের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন বলে অভিহিত করে। অবরোধ আরোপের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করে সমুচিত জবাব দেওয়ারও ঘোষণা দেয় দেশটি।
এর পরপরই গত মঙ্গলবার উত্তর কোরিয়াকে কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে ফের হামলার হুমকি দিলে উত্তর কোরিয়াকে আগ্রাসী জবাব দেওয়া হবে। পিয়ংইয়ংকে এমন জবাব দেওয়া হবে, যা আগে কখনো দেখেনি বিশ্ব। জবাবে পিয়ংইয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই হুমকির নিন্দা জানায়।