car

বরিশালে ১৬ ঘণ্টা পর বাস ধর্মঘট প্রত্যাহার

প্রকাশিত :১১.০৮.২০১৭, ১:২৮ অপরাহ্ণ

শামীম আহমেদ, বরিশাল: বরিশালের ৪ জেলায় চলমান বাস ধর্মঘট রাত ১০ টার পর প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বরিশাল সার্কিট হাউজের মিলেনায়নে প্রশাসনের সাথে বাস মালিক ও শ্রমিকদের বৈঠক শেষে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মো. শহিদুজ্জামান।

সভা শেষে তিনি বলেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাস ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য বাস মালিক ও শ্রমিকদের অনুরোধ করা হয়। এর প্রেক্ষিতে তারা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এছাড়া প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের সকল দাবী মেনে নেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়েছে। তবে তার আগে বাস মালিক-শ্রমিদের সাথে মাহিন্দ্রা চালক-শ্রমিদের মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। তবে সে হবে পবিত্র ঈদুল আজহা’র পর।

এব্যপারে বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওছার হোসেন শিপন জানান, পবিত্র হজ্ব, ইদুল আজহা ও শোকের মাস উপলক্ষ্যে এবং প্রশাসনের অনুরোধে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। তবে এই সমায়ের মধ্যে আমাদের দাবী পূরণ কার না হলে ১০ সেপ্টেম্বরের পর থেকে ফের লাগতর ধর্মঘটের ডাক দেয়া হবে বলে তিনি হুশিয়ারী দেন।

বাস মালিক ও শ্রমিকদের দাবী গুলোর মধ্যে রয়েছেঃ গত মঙ্গলবার মহাসড়কে চাঁদাবাজি রুখতে গেলে বাস মালিক সমিতির সভাপতিসহ ৫ জনের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার ও বিচার এবং আঞ্চলিক মহাসড়কে থ্রি হুইলার গাড়ি চলাচল বন্ধে যথাযথ কর্তৃপক্ষের ব্যাবসা নেয়া।

উপরক্ত দাবী আদায়ের প্রেক্ষিতে বুধবার বরিশাল বিভাগের (ঝালকাঠী, বরগুনা, বরিশাল ও পটুয়াখালী) ৪ জেলার বাস মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের বৈঠকে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে বাস ধর্মঘটের ঘোষনা দেয়া হয়।

তাই বৃহস্পতিবার সকাল ৬ টা থেকে ৪ জেলার ৩৮টি রুটে বাস ধর্মঘট শুরু হলে বিপাকে পরে হাজার-হাজার যাত্রী। গন্তব্যে কিভাবে পৌছুবে তা নিয়ে অস্থির হয়ে পড়েন তারা। কেউ বা বিকল্প পথে কেউবা হতাস হয়ে বাড়ি ফেরেন। আর অনেকইে মালপত্র নিয়ে বসে থাকেন ধর্মঘট প্রত্যাহারের আশায়। সকাল থেকেই ৪ জেলার ৩৫ রুটে যোগযোগ ব্যবস্থা এভাবে মুখ থুবড়ে পড়ে। শেষ পর্যন্ত সার্কিট হাউসে প্রশাসনের সাথে আলোচনার পর ধর্মঘট স্থগিতে রাজি হন বাস মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়ন।

প্রশাসনের সাথে বাস মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দদের মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মো. শহিদুজ্জামান। এসময় বরিশালে জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমানসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সহ-সভাপতি মো. হুমায়ুন কবির, সাধারণ সম্পাদক কাউছার হোসেন শিপন, ঝালকাঠী বাস মালিক সমিতির সহসভাপতি মাহাবুবল হক দুলাল, বরগুনা বাস মালিক সমিতির ছগির হোসেন, পটুয়াখালী বাস মালিক সমিতির প্রফেসর মো. আজাদ হোসেন, বরিশাল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, ঝালকাঠীর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান, বরগুনা শ্রমিক ইউনিয়নের সাহাবুদ্দিন সাবু, পটুয়াখালীর শ্রমিক ইউনিয়নের মাহাবুব আলম রনি প্রমুখ।