বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে প্লাবিত হয়েছে সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চল
বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে প্লাবিত হয়েছে সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চল

বিপৎসীমার ৫০ সেন্টিমিটার উপরে সুরমা নদীর পানি

প্রকাশিত :১১.০৮.২০১৭, ৩:৪৭ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : সুনামগঞ্জে গত তিন দিনের টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নিম্নাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। পৌর শহরের ষোলোঘর পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি আজ শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে বিপৎসীমার ৫০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

এ অবস্থায় বিকেল পাঁচটার দিকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। জেলার বিশ্বম্ভরপুর ও তাহিরপুর উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বিশ্বম্ভরপুর-তাহিরপুর সড়কের তিনটি স্থান প্লাবিত হওয়ায় এই সড়কে সরাসরি যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। একইভাবে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পলাশ-লাউড়েরগড় সড়কের শরীফপুর এলাকায় ঢলের পানিতে সড়ক ভেঙে যাওয়ায় ওই সড়কেও যান চলাচল করতে পারছে না।

সকালে জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার বন্যা পরিস্থিতি সরেজমিন পরিদর্শন করেছেন। দুপুরে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তানিয়া সুলতানা উপজেলার জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকদের নিয়ে জরুরি বৈঠক করেছেন।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ বলেন, ‘উপজেলার ১১টি গ্রামের মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। পানি বাড়ছে। আমরা সব জায়গায় খোঁজ নিচ্ছি।’

এ ছাড়া ভারী বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে জেলার সদর, জামালগঞ্জ, শাল্লা ও দোয়ারাবাজার উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বর্ষণ ও ঢল অব্যাহত থাকায় পানি বাড়ছে।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে জানা গেছে, সকাল ৬টায় সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ৪৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। দুপুর ১২টায় পানি আরও ৩ সেন্টিমিটার বেড়েছে।