goamam

উ. কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ১৪ মিনিটে গুয়ামে আঘাত হানতে পারবে

প্রকাশিত :১২.০৮.২০১৭, ৪:২৪ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : ক্ষেপণাস্ত্র হামলার আশঙ্কা করছে আমেরিকা। পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত মার্কিন দ্বীপ গুয়ামে আঘাত হানতে পারে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র। আমেরিকার হোমল্যান্ড সিকিওরিটি (স্বরাষ্ট্র) দপ্তর এই আশঙ্কা প্রকাশ করেছে। সম্ভাব্য হামলার কথা মাথায় রেখে তার মোকাবিলার প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে ওয়াশিংটন।
আমেরিকার হোমল্যান্ড সিকিওরিটি দপ্তরের মুখপাত্র জেনা গেমিন্ড জানিয়েছেন, অল হ্যাজার্ডস অ্যালার্ট ওয়ার্নিং সিস্টেম তৈরি থাকছে গুয়ামে।

বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমকে গেমিন্ড জানিয়েছেন, উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লেই মার্কিন বাহিনী তা জানিয়ে দেবে হোমল্যান্ড সিকিওরিটি দপ্তকে। সঙ্গে সঙ্গে সক্রিয় হবে অ্যালার্ট ওয়ার্নিং সিস্টেম, গুয়ামের বিভিন্ন এলাকায় সাইরেন বেজে উঠবে। সাইরেন বাজলেই রেডিও, টেলিভিশিন, অন্য যে কোনও গণমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখতে বলা হয়েছে গুয়ামের বাসিন্দাদের। গণমাধ্যমকে ব্যবহার করেই মার্কিন সরকার জানিয়ে দেবে, ঠিক কী ধরনের হামলা হয়েছে এবং গুয়ামের বাসিন্দাদের করণীয় কী।
বৃহস্পতিবারই উত্তর কোরিয়া গুয়ামে হামলার হুমকি দিয়েছে। গুয়ামের দিকে ১২টি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার কথা ভাবা হচ্ছে বলে তারা জানিয়েছে। গুয়ামের সামরিক ঘাঁটি থেকেই যে হেতু বার বার কোরিয় উপদ্বীপের দিকে উড়ে যাচ্ছে মার্কিন যুদ্ধবিমান, সে হেতু গুয়ামকেই লক্ষ্য বানানো হবে। হুঙ্কার দিয়েছে পিয়ংইয়ং।
উত্তর কোরিয়ার এই হুমকির প্রেক্ষিতেই সংবাদমাধ্যমে বিবৃতি দেন জেনা গেমিন্ড। তিনি জানান, উত্তর কোরিয়া থেকে ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র গুয়ামে আঘাত হানতে ১৪ মিনিট সময় নেবে। উত্তর কোরিয়ার এই হুমকিকে আমেরিকা যে হালকা ভাবে নেয়নি, গেমিন্ডের বিবৃতিতেই তা স্পষ্ট। কিমের দেশ এর আগেও বহুবার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বা পরমাণু হামলার হুমকি দিয়েছে আমেরিকাকে। কিন্তু এ বারের হুমকিকে ওয়াশিংটন অন্য চোখে দেখছে। আনন্দবাজার।