train

ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির শেষ দিনেও উপচেপড়া ভিড়

প্রকাশিত :২৩.০৮.২০১৭, ১:২১ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির শেষ দিনেও টিকিটপ্রত্যাশীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে কমলাপুর রেল স্টেশনে। আজ বুধবার সকাল ৮টায় ২৩টি কাউন্টার থেকে ১ সেপ্টেম্বরের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়। এর মধ্যে দুটি কাউন্টার থেকে নারী ও প্রতিবন্ধীদের টিকিট দেওয়া হচ্ছে।
টিকিট পেতে ভোর রাতের আগে থেকেই অনেকেই কমলাপুর রেলস্টেশনের সংশ্লিষ্ট কাউন্টারগুলোতে এসে অবস্থান নেয়। ভোরের অন্ধকার কেটে যখন দিনের আলো ফুটছিল তার আগেই কাউন্টারগুলোর খালি জায়গা টিকিট প্রত্যাশীদের ভিড়ে পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এরপর সারি প্লাটফর্ম পার হয়ে সড়কে গিয়ে পৌঁছে।

ঈদ উপলক্ষে গত ১৮ আগস্ট থেকে রেলের আগাম টিকেট বিক্রি শুরু হয়। প্রথমে ৩১ তারিখ পর্যন্ত যাত্রার অগ্রিম টিকেট বিক্রি করা হলেও চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ২ সেপ্টেম্বর ঈদ হওয়ার সম্ভাবনা থাকায় একদিন সময় বাড়ানো হয়।
তবে এদিন টিকিট প্রত্যাশীরা কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যের টিকিট না পাওয়াসহ নানা ধরনের অভিযোগ করেন।
কেউ কেউ পরপর ২/৩ দিন এসে টিকিট না পেয়ে ফেরত গেছেন বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তারা বলেন, টিকিট ছাড়ার এক বা দুই ঘণ্টার মধ্যে জানিয়ে দেওয়া হয় টিকিট শেষ।
বিভিন্ন স্থানে যাত্রায় ট্রেনের টিকিটের জন্য আসা এসব মানুষের প্রশ্ন এত তাড়াতাড়ি টিকিট শেষ হবার কথা নয়, কোথায় যাচ্ছে এসব টিকিট।
রাজশাহী যেতে টিকিটের জন্য মঙ্গলবার এসেছিলেন ব্যবসায়ী মাহবুবুল আলম জনি। কিন্তু না পাওয়ায় বিকালে এসে আবার লাইনে দাঁড়ান। তিনি বলেন, মঙ্গলবার ভোরে আসার পর আমার সিরিয়াল ছিল ৩৬৪ নম্বরে। কিন্তু কাউন্টারের সামনে যাওয়ার আগেই টিকেট শেষ। পরে বিকালে আবার দাঁড়িয়েছি। সারারাত দাঁড়িয়ে থেকে আজ ধূমকেতু ট্রেনের টিকেট কিনতে পারলাম।
রংপুর এক্সপ্রেসের ৩১ আগস্টের টিকিট কিনতে সোমবার রাতে কমলাপুর এসেও মঙ্গলবার সকালে টিকিট না পেয়ে ১ সেপ্টেম্বরের টিকিটের জন্য মঙ্গলবার বিকালে আবার লাইনে দাঁড়ানোর কথা জানান বুলবুল আহমেদ নামে একজন। বুধবার সকালে তিনি কাউনিয়া পর্যন্ত টিকিট পেয়েছেন।
উল্লেখ্য, কোরবানির ঈদ উপলক্ষে রেলের আগাম টিকিট গত ১৮ আগস্ট থেকে বিক্রি শুরু হয়। প্রথমে ৩১ তারিখ পর্যন্ত যাত্রার অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হলেও চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ২ সেপ্টেম্বর ঈদ হওয়ার সম্ভাবনা থাকায় একদিন সময় বাড়ানো হয়।