mokta

মুক্তামনির অস্ত্রোপচার শুরু

প্রকাশিত :০৫.০৯.২০১৭, ১২:২৫ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : বিরল রোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার মুক্তামনির অস্ত্রোপচার আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শুরু হয়েছে। এর আগে সকাল ৯টা ৯ মিনিটে তাকে অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) নেওয়া হয়।
ওটিতে নেওয়ার কিছু আগেই মুক্তামনির জ্বর আসে বলে তার বাবা ইব্রাহিম হোসেন জানিয়েছেন। তিনি জানান, আজ সকালেও সে ভালো ছিল। অপারেশন থিয়েটারে আনার আগেই জ্বর আসে। চিকিৎসকরা তাপমাত্রা পরিমাপ করে বলেন ১০১।

তবে এ বিষয়ে চিকিৎসকদের কাছ থেকে বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
গতকাল সোমবার তার শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনা জন্য যখন চিকিৎসকরা তার কেবিনে গিয়েছিলেন তখনও সে সম্পূর্ণ ফিট ছিল বলে জানিয়েছিলেন বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।
এর আগে গত ২৯ আগস্ট প্রচণ্ড জ্বরের কারণে মুক্তামনির অস্ত্রোপচার পুরোপুরি সম্পন্ন করতে পারেননি চিকিৎসকরা। প্রায় ২০ শতাংশ অস্ত্রোপচারের পর অপারেশন শেষ না করেই অস্ত্রোপচার কক্ষ থেকে তাকে বের করতে বাধ্য হন চিকিৎসকরা। পরে মুক্তাকে নেওয়া হয় আইসিইউতে (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র)। তবে খুব বেশিক্ষণ তাকে সেখানে থাকতে হয়নি। দুই ঘণ্টা পর তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। পরে চিকিৎসকরা বলেছিলেন, ঈদের ছুটির পরই অস্ত্রোপচার করবেন তারা।
ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন,অস্ত্রোপচারের জন্য আজ মুক্তামনির শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনা করেছে তার জন্য গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড। এ সময় কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষাও করেন চিকিৎসকরা। এরপর বোর্ড সিদ্ধান্ত নেয় মুক্তামনি অপারেশনের জন্য পুরোপুরি ফিট রয়েছে।
প্রসঙ্গত, প্রথমে মুক্তামনির এই রোগটিকে বিরল রোগ বলা হলেও প্রথম বায়োপসি করার পর জানা যায়, তার রক্তনালীতে টিউমার (হেমানজিওমা) হয়েছে। পরে ১২ আগস্ট সকাল ৯টার দিকে মুক্তামনির অস্ত্রোপচার শুরু করেন ৩০ জনের বেশি একটি চিকিৎসক দল। অস্ত্রোপচার করে তার হাত থেকে তিন কেজি মাংসপিণ্ড ফেলে দেওয়া হয়।