Banjir

রাজধানীর ‘জঙ্গি আস্তানা’য় আবদুল্লাহসহ ৭ জন

প্রকাশিত :০৫.০৯.২০১৭, ১২:২০ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : রাজধানীর মাজার রোডের জঙ্গি আস্তানায় জঙ্গি আবদুল্লাহ, তার দুই স্ত্রী, দুই শিশু সন্তান ও দুই সহযোগীসহ মোট সাতজন আছেন বলে জানিয়েছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ।
আজ মঙ্গলবার জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের অভিযানের সর্বশেষ পরিস্থিতি জানাতে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

বেনজির আহমেদ বলেন, ওই ভবনে মোট ২৪টি ফ্লাট আছে। এর মধ্যে একটি ফ্লাটে আবদুল্লাহ সপরিবারে থাকেন। অন্য ফ্লাটগুলো থেকে ৬৫ জন সাধারণ নাগরিককে নিরাপদে বের করে নিয়ে আসা হয়েছে।
তিনি বলেন, আবদুল্লাহ আইপিএস এবং ফ্রিজ মেরামতের ব্যবসা করত। এর আড়ালে তিনি বাসায় বিস্ফোরক জড়ো করেন। সেখানে প্রচুর বিস্ফোরক আছে।
অভিযান চালাতে র‌্যাব সর্বোচ্চ ধৈর্যের পরিচয় দিচ্ছে জানিয়ে বেনজির আহমেদ বলেন, কোন নিষ্পাপ মানুষ যাতে প্রাণ না হারান এজন্য তারা সময় নিচ্ছেন। ইতিমধ্যে তাদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়েছে। শেষ পর্যন্ত তারা আত্মসমর্পণ না করলে অবস্থা বুঝে র‌্যাব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবে।
এর আগে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গায় মরসুন্দি গ্রামের একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দুই জেএমবি সদস্যকে আটক করে র‌্যাব। সোমবার রাতের ওই অভিযানে আটক হওয়ার পর তাকে তাদের কাছ থেকে মিরপুরের এই জঙ্গির অবস্থানের কথা জানতে র‌্যাব।
পরে সোমবার রাত ১২টা থেকে র‌্যাব সদস্যরা রাজধানীর মিরপুরের মাজার রোডের ভাঙ্গা ওয়ালের গলির ২/৩-বি নম্বর বাসাটি ঘিরে ফেলে। র‌্যাব জানায়, ছয়তলা ওই বাড়ির পাঁচতলায় আবদুল্লাহ নামে এক জেএমবি নেতাকে সপরিবারে অবস্থান করছেন। তাকে আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়েছে।
এ সময় পরপর তিনটি বোমার বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পাওয়া যায়। এতে আশপাশের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।