islami-andolon-bangladesh

নির্যাতন বন্ধ না হলে আরাকান রাজ্য দখলের ঘোষণা

প্রকাশিত :০৮.০৯.২০১৭, ৫:১৪ অপরাহ্ণ

সারাবেলা ডেস্ক : মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর দেশটির সেনাবিহনীর চলমান নির্যাতন বন্ধ না করলে আরাকান (রাখাইন) রাজ্য দখলের ঘোষণা দিয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। একই সঙ্গে নির্যাতনের প্রতিবাদে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর ঢাকাস্থ মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাওয়ের ঘোষণা দেওয়া হয়।খবর বাংলাদেশ প্রতিদিনের।

শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে রাজধানীর বাইতুল মোকাররম মসজিদের সামনে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এ ঘোষণা দেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করিম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করিম বলেন, ‘শত শত বছর ধরে রোহিঙ্গারা আরাকানে বসবাস করছেন। আর তাদের সরকার নাকি বলে রোহিঙ্গারা তাদের নাগরিক নয়। তারা মিয়ানমারের নাগরিক না হয়ে যদি বাংলাদেশের নাগরিক হয়, তাহলে আমরা বলব আরাকান রাজ্য বাংলাদেশের অংশ। মিয়ানমারে যদি রোহিঙ্গা নিধন বন্ধ না হয় তাহলে বাংলার মুসলমানদের ঐক্যবদ্ধ করে, তাদের সঙ্গে নিয়ে নাফ নদী পার হয়ে আরাকান রাজ্য দখল করা হবে। ’

একই সঙ্গে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর দেশটির সেনাবাহিনীর বর্বরোচিত নির্যাতনের জন্য আন্তর্জাতিক আদালতে দেশটির ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী অং সান সু চির বিচার দাবিও করা হয়।

এদিন ঘোষিত কর্মসূচির মধ্যে ১১ সেপ্টেম্বর সারাদেশে বিক্ষোভ, ১২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ, ১৩ তারিখ সকাল ১০টায় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ থেকে মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাওয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়া হবে।

শুক্রবারেরর বিক্ষোভ কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ ইউনুস আহমদ, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান, চরমোনাই পীরের রাজনৈতিক উপদেষ্টা আশরাফ আলী আকন প্রমুখ।