kornofully

প্রচারণা শেষ, রোববার কর্ণফূলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

প্রকাশিত :২৩.০৯.২০১৭, ১২:০৯ অপরাহ্ণ

জে. জাহেদ, চট্টগ্রাম: নানা উৎসাহ-উদ্দীপনা এবং উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হলো নবসৃষ্ট প্রথম কর্ণফূলী উপজেলা নির্বাচনের প্রচার অভিযান। রাত পোহালেই শুরু হবে ভোট গ্রহণ।

২৪ সেপ্টেম্বর রবিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট দেবেন এক লক্ষাধিক ভোটার। নির্বাচন কমিশনের সকল প্রস্তুতিও সম্পন্ন।

এদিকে, সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ বজায় রাখতে ভোট কেন্দ্রে যে কোন বিশৃঙ্খলা কঠোর হস্তে দমন করার ঘোষণা দিয়েছেন রিটার্নিং অফিসার ও সংশ্লিষ্ট বাহিনীরা।

নির্বাচনী পরিবেশ সম্পূর্ণ স্বাভাবিক আছে জানিয়ে রিটার্নিং অফিসার ভোটারদের নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানান।

অবাধে ভোট গ্রহণের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রায় সহস্রাধিক সদস্য মাঠে নিয়োজিত থাকবে।

গত মধ্যরাত থেকেই নগরীতে টহল দিতে দেখা গেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যদের। নগরীর বিভিন্ন স্থানে দেখা গেছে পুলিশের চেকপোস্ট।

প্রচারের শেষ দিনেও ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চেয়েছেন প্রার্থীরা। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি, জাতীয়পার্টি, ইসলামী ঐক্য ফ্রন্ট সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা উপজেলা বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ করেন। এ সময় তারা ভোটারদের ভোট দিতে কেন্দ্রে আসার আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ২৮ এপ্রিল জুলধা ইউনিয়ন পরিষদে কর্ণফুলী উপজেলা প্রশাসনের অস্থায়ী কার্যালয় ও দাপ্তরিক কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বর্তমান ভূমিপ্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি। অনেকে বলে পিতার স্বপ্ন পুত্রের হাতে বাস্তবায়ন হচ্ছে।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে. কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাচনে মোট ভোটার প্রায় ১ লাখ ৭ হাজার ৭৯৯ ভোট। পুরুষ ৫৩ হাজার ৫৯৯ এবং মহিলা ৫৪ হাজার ২০০ ভোট। ভোট কেন্দ্র পুর্বে ৪০টি থেকে শিকলবাহা ইউনিয়নে ২ বাড়িয়ে ৪২টি করা হয়েছে।

অন্যদিকে ৩টি পদে দলীয় প্রতীকে অনুষ্টিত হবে এ নির্বাচন। উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিন পদেই দলীয় প্রতীকে আলাদা ব্যালট পেপারে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ফারুক চৌধুরী নৌকা প্রতীকে, বিএনপির এসএম ফোরকান ধানের শীষ প্রতীকে ও ইসলামিক ফ্রন্টের জাহাঙ্গীর কবির রিজভী চেয়ার প্রতীক নিয়ে লড়ছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দিদারুল ইসলাম চৌধুরী নৌকা প্রতীকে, বিএনপির হাজী মুহাম্মদ ওসমান ধানের শীষ প্রতীকে, ইসলামী ফ্রন্টের মাওলানা মুছা মোমবাতি প্রতীক নিয়ে ও ইসলামিক ফ্রন্টের নাছির আহমদ চেয়ারম্যান নিয়ে লড়ছেন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বানাজা বেগম নৌকা প্রতীকে, বিএনপির উম্মে শামীমা মিরজান ধানের শীষ প্রতীকে ও জাতীয় পার্টির মুন্নি বেগম লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন বলে ইসি নিশ্চিত করেন।

কর্ণফূলীতে প্রথম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে কে সিংহাসনে বসবেন। জনগণ ও উন্নয়নের নেতৃত্ব দেবেন এ নিয়ে নানা জল্পনা কল্পনা ইতিমধ্যে চায়ের কাপে ঝড় তুলেছে।