বিসিবির কোচ নিয়োগের পরীক্ষায় অবতীর্ণ পাইবাস?

প্রকাশিত :০৫.১২.২০১৭, ৩:৫৭ অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশের প্রধান কোচের পদ থেকে লঙ্কান চন্ডিকা হাথুরুসিংহে পদত্যাগ করার পর গুঞ্জন উঠেছে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিয়োগ পেতে যাচ্ছেন খালেদ মাহমুদ সুজন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের চিন্তা আসলে ভিন্ন। স্বল্পমেয়াদী নয় দীর্ঘমেয়াদী কোচ নিয়োগের পথেই হাঁটতে চায় বিসিবি। আর তাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকায় পা রাখছেন ইংলিশ বংশোদ্ভূত দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ রিচার্ড পাইবাস। বিসিবি কর্তাদের সঙ্গে কোচ নিয়োগের পরীক্ষায় অবতীর্ণ হবেন তিনি।

তবে পাইবাস সন্ধ্যায় আসলেও বিসিবির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বুধবার। বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস নিশ্চিত করেছেন পাইবাসের ঢাকায় আগমনের বিষয়, হ্যাঁ, তার (পাইবাস) আজ সন্ধ্যায় আসার কথা রয়েছে। তবে সাক্ষাৎকারের সময়টা এখনও নির্দিষ্ট হয়নি। হয়তো আগামীকাল দুপুরের দিকে বসবেন।

বাংলাদেশে এর আগেও কাজ করেছেন পাইবাস। ২০১২ সালের মে মাসে স্টুয়ার্ট ল পদত্যাগ করার পর টাইগারদের কোচের দায়িত্বে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। তবে খুব বেশি দিন টিকতে পারেননি। বিসিবির সঙ্গে তিক্ততাতেই ভরা ছিল তার মাত্র সাড়ে চার মাসের বাংলাদেশ অধ্যায়। এমনকি চুক্তিতেও সাক্ষর করেননি পাইবাস। মূলত বার্ষিক ৪৫ দিনের ছুটির শর্তে আপত্তি ছিল এই আফ্রিকানের। এছাড়াও বেশ কিছু অভিযোগ ছিল তার। এতো অভিযোগ থাকার কারণে তাকে আর রাখেনি বিসিবি।

পাঁচ বছর পর আবার তার দিকেই কেন হাঁটছে বিসিবি? এ কথার জবাব দেননি জালাল ইউনুস। তবে জানা গেছে সর্বশেষ বাংলাদেশ কোচ চান্ডিকা হাথুরুসিংহের কঠিন নিয়ম শৃঙ্খলা ভালো লেগেছে বিসিবি কর্তাদের। তার সময়ে বাংলাদেশের ফলাফলও ঈর্ষণীয়। তাই একজন কঠোর কোচকেই বেছে নিতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

আজসারাবেলা/মুয়াজ/খেলা