বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল, কেউ অস্বীকার করতে পারবে না প্রধানমন্ত্রী

আজ আমরা বলতে পারি ডিজিটাল বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত :০৬.১২.২০১৭, ১:৪৩ অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: ইন্টারনেট সেবার আওতায় এসেছে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী। দেশ এখন ডিজিটাল কেউ তা অস্বীকার করতে পারবে না। তথ্য প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে দেশকে অন্য উচ্চতায় নিবে মেধাবী তরুণরা বলেছেল, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ বুধবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭ উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তথ্য প্রযুক্তি বিকাশের ফলে আমাদের সামনে নতুন এক শিল্প বিপ্লবের সুযোগ তৈরি হয়েছে। এ বিপ্লবের প্রধান রসদ হলো তরুণ-তরুণী, যা আমাদের আছে।
প্রযুক্তি প্রতিনিয়ত উন্নত হচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আজ আমরা বলতে পারি ডিজিটাল বাংলাদেশ। অথচ দশম সংসদের নির্বাচনের পর আমাদের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ ইশতেহার নিয়ে অনেকে ঠাট্টা করেছিল।

তিনি বলেন, দেশে একবার যখন উন্নয়নের চাকা গতিশীল হতে শুরু করেছ এটা কেউ থামিয়ে দিতে পারবে না। বাংলাদেশবাসী বিশ্বের সামনে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশ হিসেবে অধিষ্ঠিত করতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের মানুষ খুব বেশি শিক্ষিত না হলেও তারা মোবাইল ফোন ব্যবহারে পারদর্শী। এত বেশি সময় ধরে মোবাইল ফোনে কথা বলার রেকর্ড বিশ্বের অন্য কোনও দেশে নেই। এখন স্কাইপির মাধ্যমে বিদেশে আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে কথা বলতে পারে মানুষ। হাতে টাকা এলেই এখন কেউ ছেলের সঙ্গে, কেউবা স্বামীর সঙ্গে কথা বলবে ও একে অপরকে দেখবে বলে ডিজিটাল সেন্টারে গিয়ে বসে থাকে।
বিশ্বে প্রথম নাগরিকত্ব পাওয়া রোবট সোফিয়া প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনী বক্তব্য শেষে মঞ্চে আসে। এসময় সোফিয়া প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। পরে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের উদ্বোধন করা হয়।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং আইসিটি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ইমরান আহমেদ এবং বাংলাদেশ সফটওয়্যার ইনফর্মেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর সভাপতি ও বিজয় সফটওয়ারের প্রবক্তা মোস্তফা জব্বার। আইসিটি মন্ত্রণালয়ের সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন।

মন্ত্রী পরিষদ সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সরকারের পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা, বিভিন্ন দেশের কূটনিতিক, মেলায় অংশগ্রহণকারি বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং কম্পিউটার খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

কয়েকটি আইটি সংগঠনের সহযোগিতায় আইসিটি বিভাগ ও বেসিস ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’-এর আয়োজন করেছে।

আ/সা/তারেক