ফেরির তলা ফেটে যানবাহন নদীতে

প্রকাশিত :০৬.১২.২০১৭, ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: খুলনা-পিরোজপুর-বরিশাল আঞ্চলিক মহাসড়কের কঁচা নদীতে বেকুটিয়া লাইটার জাহাজের ধাক্কায় ফেরির ব্যাক প্লেট ফেটে নদীতে নিমজ্জিত হয়েছে। এতে ফেরিতে থাকা একটি বাস ও দুইটি মালবাহী ট্রাক নদীর পানিতে তলিয়ে যায়।
গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে এ ঘটনার পর থেকে এ রুটে ফেরী চলাচল বন্ধ রয়েছে বলে জানান ফেরি ঘাট সুপারভাইজার মো. রফিকুল ইসলাম। এ দুর্ঘটনায় ২ জন আহত হলেও কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে দুর্ঘটনার শিকার ফেরিটি উদ্ধারের কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, পুলিশ, কোষ্টগার্ড এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ।
বরিশাল ফেরি বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহা. শামিমুল হক জানান, রাত আনুমানিক ১ টার দিকে পিরোজপুরের কুমিরমারা ঘাট থেকে ফেতিতে থাকা ১টি বাস, ৫টি ট্রাক ও ৩টি পিকাপভ্যান নিয়ে বেকুটিয়া ঘাটে যাচ্ছিল। এ সময় নদীর মাঝে একটি লাইটার জাহাজ ফেরিটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ফেরির ব্যাক প্লেট ফেটে যায়। তখন চালক দ্রুত চালিয়ে ফেরিটিকে নদীর বেকুটিয়ার পাড়ের একটি চড়ে তুলে দেয়। ফাটলের অংশ থেকে ফেরিতে পানি উঠার কারণে কুয়াকাটা এক্সপ্রেস নামের একটি বাস ও ২ টি ট্রাক পড়ে নদীর পানিতে তলিয়ে যায়। তবে এ সময় বাসে থাকা যাত্রীরা আগেই নেমে যায় বলে জানান ফেরির সুপারভাইজার।
নির্বাহী প্রকৌশলী মোহা. শামিমুল হক আরও জানান, ফেরিটি নিমজ্জিত হওয়ার কারেণ এ রুটে ফেরি চলাচল আপাতাত বন্ধ রয়েছে। তবে বিকল্প ব্যাবস্থায় অন্য একটি ফেরির ব্যবস্থা করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরের দিকে সেই ফেরি দিয়ে পুনরায় যানবাহন পারাপার স্বাভাবিক রাখা হবে।
বরিশাল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সহকারী পরিচালক মো. মতিউর রহমান জানান, খবর পেয়েই বরিশাল থেকে পিরোজপুরের এসে দুর্ঘটনার শিকার ফেরিটি ও এতে থাকা যানবাহন উদ্ধার চেষ্টা করছে।

আ/সা/তারেক