আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের জামিন স্থগিত

প্রকাশিত :১৮.১২.২০১৭, ২:৫০ অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: অর্থ পাচারের অভিযোগে করা একটি করে মামলায় আপন জুয়েলার্সের তিন মালিককে দেওয়া জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার বিচারপতি। হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ সোমবার চেম্বার বিচারপতি মো. ইমান আলী ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ দেন।

পৃথক তিন মামলায় গত বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আপন জুয়েলার্সের তিন মালিক দিলদার আহমেদ, গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদের জামিন দেন। জামিন স্থগিত হয়ে যাওয়ায় কেউই মুক্তি পাচ্ছেন না।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন। অন্যদিকে, তিন মালিকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মুন্সি মনিরুজ্জামান।

মোতাহার হোসেন বলেন, হাইকোর্টের জামিন ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত করেছেন চেম্বার বিচারপতি। সেদিন চেম্বার আদালতে আবেদনের শুনানি হবে। হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত হওয়ায় তারা কেউ মুক্তি পাচ্ছেন না।

বনানীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগের ঘটনায় আপন জুয়েলার্সের নাম সামনে আসে। ওই ঘটনায় করা মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে শাফাত আহমেদসহ পাঁচজনকে আসামি করা হয়। অন্য আসামিরা হলেন নাঈম আশরাফ, সাদমান সাকিফ, শাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও তাঁর দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ।

এই মামলা চাপা দিতে বিপুল অর্থ খরচের চেষ্টার অভিযোগ উঠলে অর্থের উৎস ডার্টি মানি কি না অথবা তাদের ব্যবসায়িক কার্যক্রম অস্বচ্ছ কি না, তা খতিয়ে দেখতে শুরু করে শুল্ক গোয়েন্দারা। আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে পাঁচটি মামলা হয়।