ফোর-জি লাইসেন্স আবেদন ও তরঙ্গ নিলাম
বিটিআরসির বিজ্ঞপ্তি স্থগিত

প্রকাশিত :১১.০১.২০১৮, ১:৪০ অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট : ফোর-জি লাইসেন্স আবেদন এবং তরঙ্গ নিলামের জন্য বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) আবেদন জানিয়ে জারি করা বিজ্ঞপ্তি স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমদের হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালতের আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস।

আদালতে রিট আবেদনটি দায়েরে করে বাংলালায়ন কমিউনিকেশন্স লিমিটেড। আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ড. কামাল হোসেন। সঙ্গে ছিলেন রমজান আলী সিকদার।

আদেশের পর আবেদনকারীর এক আইনজীবী বলেন, সেলুলার মোবাইল ফোন সার্ভিসেস, এটা করে যে নীতিমালা আহ্বান করেছিলো, বিটিআরসির নোটিশ যেটা দেওয়া হয়েছিলো, ২০০৮ সালের ব্রডব্যান্ড গাইডলাইন্সের সঙ্গে তা সাংঘর্ষিক। এ কারণে বিজ্ঞপ্তিতে স্থগিতাদেশ দিয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

গত ৪ ডিসেম্বর বিশেষ কমিশন সভায় দুই গাইডলাইন প্রকাশ ও আবেদন আহ্বানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ওই দিন বিটিআরসির ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন গ্রহণের পর ২৫ জানুয়ারি যোগ্য আবেদনকারীর তালিকা প্রকাশের কথা জানায় বিটিআরসি।

তারা জানায়, ২৯ জানুয়ারি নিলামের আলোচনা, ৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিড আর্নেস্ট মানি প্রদান, ৭ ফেব্রুয়ারি নিলামের চিঠি প্রদান, ১২ ফেব্রুয়ারি মক নিলাম, ১৩ ফেব্রুয়ারি নিলাম এবং ১৪ ফেব্রুয়ারি নিলামে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।

গত বছরের ২৯ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই দুই গাইডলাইনের অনুমোদন দেন।

ওই দিন সংবাদ সম্মেলনে তৎকালীন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, মোবাইল ফোন অপারেটরদের আপত্তিগুলো নিষ্পত্তি করে ফোর-জি লাইসেন্সিং গাইডলাইন এবং তরঙ্গ নিলাম গাইডলাইন অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের কাছে অপারেটররা যে ২৩টি বিষয় বিবেচনার অনুরোধ করেছিল, তার মধ্যে ২২টি সম্পূর্ণভাবে এবং ২৩ নম্বরটি আংশিকভাবে বিবেচনা করেছি।

‘ফোরজি লাইসেন্স আবেদন ফি আগে ছিল ৫ লাখ টাকা, এখনও তা-ই আছে।

আজ সারাবেলা/তারেক