যেসব ছবি তোলা যাবে না উত্তর কোরিয়ায়

প্রকাশিত :১১.০১.২০১৮, ১২:১৩ অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: হীরক রাজার দেশ যেন উত্তর কোরিয়া। ওখানে রাজার ইশারায় গাছের পাতা নড়ে-চড়ে। বাতাসও বয়। এমন কোন কাজ নেই যেটি কিম জং উনের হুকুম ছাড়া হয়। দেশটিতে ছবি তুলতে মানা নেই। তবে কিছু বিষয়ে ছবি তুলতে কিমের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

এবিপিলিভ এক খবরে জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়ার আনাচে কানাচে কিমের মূর্তি। সবাই দেখো…ভালো ছবি তোলো… কিন্তু কিমের পিছনের ছবি তুলো না খবরদার… তাহলেই বিপদ!

কিমের কড়া নির্দেশ পালনে সর্বদা ব্যস্ত সে দেশের সেনা। মাঝে মধ্যে বিশ্রাম নিতেই পারেন। কিন্তু এমন ছবি তোলা যাবে না। যদি বিশ্বের কাছে প্রকাশ হয়ে যায় যে কিমেরা সেনারা ফাঁকিবাজ! ভাবছেন,কিম তার বিশাল সেনাবাহিনীকে বহাল তবিয়তে রাখেন। ছবির পিছনে রয়েছে অন্য গল্প! সেনাদের আনন্দ-উচ্ছ্বাসের ছবি এখানে তোলা বারণ। তোলো তো ডলফিনের ছবি তোলো…

সেনাবাহিনীর কোন কর্মসূচির ছবি তোলা গুরুতর অপরাধ উত্তর কোরিয়ায়। বিশ্বের কাছে তাদের ক্রিয়াকলাপ সব সময়ই রহস্যের মধ্যে থাকে।

সেনাবাহিনীতে কাজ করার পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন কাজও সেনাদের করতে হয় এবং সেটা অনেক সময় অপমানজনক হলেও তারা অসহায়। এ ছবিও তোলা বারণ…

দেশের জন্য লড়েন। বিনিময়ে দেশ তাদের কী দেয়, এই সেনার চোখে মুখে তা স্পষ্ট। বেশির ভাগ সেনাই অপুষ্টিতে ভোগেন। এই ছবি তুললেই শুলে চড়তে হবে।

চিত্রগ্রাহক এরিক ল্যাফোরগের কথায়, ২০০৮ সাল থেকে ছয় বার উত্তর কোরিয়া গিয়েছেন। লুকিয়ে ছবি তুলেছেন। তিনি জানেন, তিনি যা করছেন ধরা পড়লেই মৃত্যু। তবু চ্যালেঞ্জ নিয়ে এই কাজটিই হাসি মুখে করে ফেলে বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছেন এরিক!

আজ সারাবেলা/সংবাদ/আন্তর্জাতিক