আয়া ধর্ষণ, ক্লিনিক পরিচালক কারাগারে

প্রকাশিত :১৩.০১.২০১৮, ১২:৩৩ অপরাহ্ণ

মোস্তাফিজার রহমান বাবলু, রংপুর : রংপুরে সুফিয়া কামাল মেমোরিয়াল হসপিটালের এক আয়াকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছেন ওই প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল মামুন আজাদ খান রিপন। এঘটনায় পুলিশ ধর্ষিতা কে উদ্ধার ও ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

এদিকে, ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছে।

মামলার বিবরণে প্রকাশ, রংপুর নগরীর সিও বাজারস্থ সুফিয়া কামাল মেমোরিয়াল হসপিটালে প্রায় ৬ মাস আগে আয়া পদে চাকুরী নেয় এক বিধাব নারী। এরপর থেকে ওই প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল মামুন আজাদ খান রিপন বিধবা আয়াকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। এরপরও অভাবের সংসারে ওই নারী বিষয়টি এড়িয়ে সর্তকতার সাথে তিনি তার দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তারপর, গত ১০ ডিসেম্বর মুঠোফোনে খান রিপন ওই আয়াকে রাতে জরুরী অপারেশনের নামে অটি রুমে ডেকে নেয়। এরপর, রাত গভীর হলে আয়া বাসায় না ফিরে অটি রুমের সোফায় ঘুমিয়ে পড়ে। ঘটনার রাত্রি দেড়টার দিকে চুপিসারে লম্পট ধর্ষক অটি রুমে প্রবেশ করে কু-প্রস্তাব দেয়। এতে ভিকটিম রাজি না হলে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে।

ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীদের খবরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার ও ধর্ষককে আটক করে কোতয়ালী থানায় নিয়ে আসে। তারপর পুলিশ ভিকটিমের জবানবন্দি রেকর্ড করে একটি মামলা দায়ের করে।

এ বিষয়ে ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সামসুর রহমান কোয়েল গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, কারও ব্যক্তিগত অপরাধে ডায়াগনষ্টিক মালিক সমিতি হস্তক্ষেপ করে না।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাবুল মিঞা জানান, ভিকটিমকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছে।