বিএনপির মৃত্যু না চাইলে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন: কামরুল - Aj SaraBela (আজ সারাবেলা)

বিএনপির মৃত্যু না চাইলে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন: কামরুল

প্রকাশিত :১৮.০২.২০১৮, ২:২৮ অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট : খালেদা জিয়াকে ছাড়া বিএনপি নির্বাচনে আসবে কি আসবে না, সেটা তাদের দলীয় বিষয় মন্তব্য করে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, তবে নির্বাচন কারও জন্য থেমে থাকবে না, নির্বাচন যথা সময়েই হবে।

বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনারা যদি বিএনপির মৃত্যু ঘটাতে না চান, তাহলে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন। আমরা কোনো দলকে বাদ দিয়ে নির্বাচন করতে চাই না।’

খালেদা জিয়ার মামলায় রায়ের অনুলিপি পাওয়ার দেরির জন্য বিএনপিকে দোষারোপ করেছেন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম।

রায়ের অনুলিপি পেতে দেরির জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে সরকারকে দায়ী করার মধ্যে পাল্টা দোষারোপ করলেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।

অ্যাডভোকেট কামরুল রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের এক আলোচনা সভায় বলেন, ‌’খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার সাথে সাথে সার্টিফাইড কপির জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো দরখাস্ত দেওয়া হয় নাই। তারা দরখাস্ত দিয়েছে দু-দিন পরে। অর্থাৎ অহেতুক তারা বিলম্ব করে রোববারে তারা দরখাস্ত দিয়েছে।

‘একইভাবে তারা ডিভিশন প্রাপ্তির বিষয়ে দরখাস্ত দিয়েছে দুদিন পর। এগুলোর কারণ, জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে এবং অহেতুক একটা ধুম্রজাল সৃষ্টির চেষ্টা।’

জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আদালত খালেদা জিয়াকে ৫ বছর কারাদণ্ড দেওয়ার পর থেকে বন্দি আছেন তিনি। রায়ের সত্যায়িত অনুলিপি পেলে তিনি হাই কোর্টে আপিল করে জামিনের আবেদন জানাবেন।

বিএনপি অভিযোগ করে আসছে, খালেদা জিয়াকে বেশি দিন কারাগারে আটকে রাখতে রায়ের অনুলিপি পাওয়ায় প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছে সরকার।

মন্ত্রী কামরুল বলেন, ‌’রায়ের সার্টিফাইড কপি অবশ্যই তারা পাবেন, আদালতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে। সার্টিফাইড কপি টাইপ হবে তারপর তারা পাবেন। এখানে সরকারের কোনো বিষয় নাই, এটা আদালতের বিষয়।’

দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসনের নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়টিও আদালতের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এখানে সরকারের কিছু বলার নেই।’

খালেদার মুক্তি দাবিতে রোববার ঢাকায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্মারকলিপি দেওয়ার সময় বিএনপি উচ্ছৃঙ্খলতার প্রকাশ ঘটিয়েছে বলেও দাবি করেন কামরুল।

‘বিএনপি তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির নমুনা আজ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দেখিয়েছেন। তারা যে উচ্ছৃঙ্খল, সে চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ তারা ঘটিয়েছে।’