আমি নিজেকে কারো সাথে মূল্যায়ন করি না : সানাই

‘ভালোবাসা ২৪/৭’, ‘প্রতিশোধ’, ‘শালবনের মহুয়া’র পর সানাইকে আর ফিরে তাকাতে হয়নি পিছনের দিকে। এখন কেবলই তার এগিয়ে যাওয়ার সময়। এই সময়ের অনেক নায়িকাদের চেয়ে এগিয়ে আছেন সানাই গ্ল্যামার আর অভিনয়ের যোগ্যতায়। নিজের কাজ আর ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলেন সানাই

সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জে. জাহেদ

আজ সারাবেলা: কখনো কি ভেবেছিলেন অভিনয় করবেন, নায়িকা হবেন, চলচ্চিত্রে আসবেন?

সানাই: অভিনয়কে ভালো লাগতো, ভালোবাসতাম বলেই এখানে এসেছি। তবে ইন্ডিপেন্ডেন্ট কিছু করার ইচ্ছা সব সময় ছিল। আমি স্বাধীনতাপ্রিয়। নিজের মত চলতে চেয়েছি সব সময়। চেয়েছি সৃজনশীল কিছু করতে। সেই আগ্রহ নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি।

আজ সারাবেলা: যদি চলচ্চিত্রে না আসতেন তাহলে নিজেকে কোথায় দেখতে চাইতেন?

সানাই: অভিনয়শিল্পী যদি না হতাম তাহলে পুরোপুরি ব্যবসায়ী হিসেবে নিজেকে আত্মপ্রকাশ করতাম। আমার বিশ্বাস ব্যবসায়ী হিসেবে সফলও হতাম।

আজ সারাবেলা : ছবিতে কোন ধরনের চরিত্রে অভিনয় করতে বেশি ভালো লাগে আপনার?

সানাই: দেখুন, আমি অভিনয়শিল্পী। মানুষের চরিত্র ও জীবনকে ফুটিয়ে তোলাই আমার কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। সব চরিত্রেই আমার দুর্বলতা রয়েছে। প্রতিটি মানুষ আলাদা। তার চরিত্রও আলাদা। ভিন্ন ভিন্ন চরিত্র হয়ে উঠতে চাই আমি। যাতে গতানুগতিক মনে না হয়। তবে অ্যাকশন ছবিতে কাজ করতে ভাল লাগে আমার।

আজ সারাবেলা: সাম্প্রতিক সময়ে ব্যস্ত রয়েছেন কী কী কাজ নিয়ে?

সানাই: পরিচালক বাবু সিদ্দিকীর ‘ময়নার ইতিকথা’ ছবির কাজ সম্প্রতি শেষ করেছি। ডাবিং এর কাজ চলছে, পাশাপাশি সংগীতের কিছু মিউজিক ভিডিওর কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছি। আরও কিছু ছবি ব্যাপারে কথা হয়েছে। চূড়ান্ত হলেই আপনারা জানবেন।

আজ সারাবেলা : বর্তমানে মাহী, পরীমনি, বুবলী, জয়া, ববি, ফারিয়ারা ছবিতে নিয়মিত কাজ করছেন। অন্যদের নিয়ে আপনার মূল্যায়ন জানতে চাইব?

সানাই: প্রত্যেকেই যার যার মত। নিজের যোগ্যতায় সবাই কাজ করছে। ভালো করছে। আমি কারো প্রতিদ্বন্দ্বী নই। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী আমি নিজেই। তাই কারো মূল্যায়নে আমি যাব না।

আজ সারাবেলা: একটু অন্য প্রসঙ্গে যাই। সরকার সারাদেশে ৫০টি সিনেমা হলে এইচডি প্রজেক্টর বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সিদ্ধান্তে আপনি কতটা আশাবাদী?

সানাই: সরকার ভাল একটি উদ্যোগ নিয়েছে। আশা করি খুব তাড়াতাড়ি তার সুফল ভোগ করবে দশর্ক। খুবই খুশি হয়েছি, কেননা দীর্ঘদিন পরে হলেও সরকার ও এফডিসি একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ নিয়েছে।

আজ সারাবেলা : অনেকেই বাইরের ছবি এখানে প্রদর্শনের বিপক্ষে। আপনার মতামত কী?

সানাই: বাইরের দেশে তো আমাদের ছবি দেখায় না। ভারতে আমাদের কোন চ্যানেলও তারা দেখায় না, সিনেমাও না। যেকোন কিছু টু-ওয়ে হওয়া উচিত।

আজ সারাবেলা: পাইরেসির অভিযোগ প্রায়ই শোনা যায়। পাইরেসি বন্ধে কি করা যায় বলে আপনি মনে করেন?
সানাই: প্রতিবেশি রাষ্ট্র ভারতে পাইরেসি বন্ধে সে দেশের প্রশাসন কঠোর অবস্থানে রয়েছে। আমাদের দেশেও পাইরেসি বন্ধে আইন রয়েছে কিন্তু সব সময় তা খুব কার্যকর ভূমিকা রাখে না। এক্ষেত্রে সরকার আরও বড় ভূমিকা রাখতে পারে। পাশাপাশি দেশের বড় বড় গুনী মেধাবী শিল্পীরা এগিয়ে আসলে পাইরেসি বন্ধ হবে অচিরেই।

আজ সারাবেলা: সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

সানাই: আজ সারাবেলা ও আপনাকে ধন্যবাদ।