ফের রিয়াল ছাড়ার হুমকি দিলেন জিদান

সারাবেলা রিপোর্ট: চলতি মৌসুমের মাঝপথে দ্বিতীয় দফায় রিয়াল মাদ্রিদের কোচের দায়িত্ব নেন টানা তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী কোচ জিনেজিন জিদান। দলের খারাপ সময় চলতে থাকায় একপ্রকারের বাধ্য হয়েই ফিরতে হয় তাকে।

তবে দ্বিতীয় দফায় দায়িত্ব নেয়ার কিছুদিনের মাথায় ফের রিয়াল ছাড়ার হুমকি দিলেন জিদান। জানালেন, নতুন মৌসুমে নিজের পছন্দ অনুযায়ী দল গোছাতে না পারলে আবারও ইস্তফা দেবেন রিয়াল মাদ্রিদের কোচের পদ থেকে।

কানাঘুষো চলছে দলের খেলোয়াড় নির্বাচনে ক্লাবের উপর মহল থেকে এখনো চাপ দেয়া হচ্ছে জিদানকে। বিশেষ করে গোলরক্ষক পজিশনে। মূলত, রিয়ালের দুই গোলরক্ষকের মধ্যে জিদানের আস্থা পুরনো সৈনিক কেইলর নাভাসের উপর। তবে চেলসি থেকে রেকর্ড পরিমাণ মূল্যে কেনা থিবো কোর্তোয়াকে গোলবারের নিচে চায় ক্লাবের শীর্ষ কর্তারা।

এই দ্বন্দ্বেই মূলত ফের ক্লাব ছাড়ার হুমকি দিয়ে দিয়েছেন সাবেক এই ফ্রেঞ্চ ফুটবলার। স্প্যানিশ গণমাধ্যম মার্কা প্রচার করেছে এ খবর। যেখানে ঝাঁঝালো কণ্ঠে জিদান বলেছেন, ‘আমি ঠিক করবো কে হবে রিয়ালের প্রথম গোলরক্ষক আর কে দ্বিতীয়। এটা সম্পূর্ণ আমার সিদ্ধান্ত হবে। পানির মতো স্বচ্ছ সবকিছু। আর আমি যদি তা করতে না পারি, তবে নিশ্চিত আমি চাকরি ছাড়ব।’

তিনি আরও বলেন, ‘ফুটবলার চুক্তি করানোর জন্য আলাদা মানুষ আছে। কিন্তু আমরা (কোচ) তাদের এক করি। তবে কে শুরুর একাদশে থাকবে আর কে বেঞ্চে বসে থাকবে, শুধুমাত্র আমিই তা নির্ধারণ করবো।’

এদিকে ইউরোপিয়ান গণমাধ্যমগুলো ফলাও করে প্রচার করছে, লস ব্লাঙ্কোস শিবির ছাড়তে চাইছেন নাভাস। রিয়ালের হয়ে টানা তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ বিজয়ী এই গোলরক্ষক কোর্তোয়ার কাছে জায়গা হারানো নিয়ে নাখোশ। এ কারণেই ক্লাব ছাড়তে মরিয়া তিনি।

যদিও এই কোস্টারিকানের ক্লাব ছাড়ার ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কোনো সিদ্ধান্ত এখনো নেয়া হয়নি বলে নিশ্চিত করেছেন জিদান। রিয়াল বস বলেন, ‘আমি যদি তাকে শেষ বিদায় বলে দেই, তবে তার হাতে আর মাত্র একটি ম্যাচ আছে। গোলরক্ষকের জায়গা নিয়ে পরবর্তী মৌসুমে আর জলঘোলা হওয়ার সুযোগ থাকছে না। দেখা যাক কী হয়?’

এদিকে নাভাস ক্লাব ছাড়লে দলের দ্বিতীয় গোলরক্ষক হিসেবে লোনে থাকা আন্দ্রে লুনিনকে স্কোয়াডে রাখতে ইচ্ছুক রিয়াল বোর্ড। এখানেও বাঁধ সেধেছেন জিদান। লুনিন নয় দলের দ্বিতীয় গোলরক্ষক হিসেবে নিজের ছেলে লুকা জিদানকে বেশি পছন্দ তার।

নিজের পছন্দ নিয়ে অবশ্য ব্যাখ্যাও দিয়েছেন তিনি। জিদান বলেন, ‘এটা বলা ঠিক হবে না যে লুকা আমার ছেলে বলে রিয়ালে খেলে। সে তার পুরো জীবন রিয়াল মাদ্রিদে কাটিয়েছে এবং সে প্রমাণও করেছে সে যোগ্য। আমি ক্লাবকে বলিনি, লুকাকে আমি ব্যাকআপ গোলরক্ষক হিসেবে চাই। এ ব্যাপারে সকলের সঙ্গে বসে আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে। তবে সত্যি হচ্ছে, আমার ছেলে বলে লুকা রিয়ালে সুযোগ পায়নি। আরও ১৭ বছর আগে আমি ওকে বলেছিলাম, তোমার পুরোটা জীবন কিন্তু লড়াই করে কাটাতে হবে।’

আজ সারাবেলা/সংবাদ/সিআ/খেলাধুলা

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.