ডিসি বিপ্লবের বদলি বাতিলে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান এলাকার জনগন

সারাবেলা রিপোর্ট: বিপ্লব সরকার বাংলাদেশ পুলিশের সেই সাহসী কর্মকর্তা, যিনি ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে অনুষ্ঠিত ত্রৈমাসিক অপরাধ সভায় আইজিপি মহোদয়ের উপস্থিতিতে দৃঢ় কণ্ঠে বলেছিলেন, ‘রেঞ্জ ডিআইজিরা ওসি পদায়নে ২০ থেকে ৫০ লাখ টাকা করে ঘুষ নেন। আবার পুলিশ সুপাররা এসআই, এএসআই ও কনস্টেবল পদায়নে ঘুষ নেন। ফলে এ ঘুষের টাকা উঠাতে গিয়ে ওসি থেকে শুরু করে নিচের পদের সদস্যরা মাদক বাণিজ্যসহ নানা অবৈধ কর্মকান্ডে যুক্ত হন। ফলে মাদকবাণিজ্য বন্ধ করা যায় না। মাদক বাণিজ্য বন্ধ করতে হলে ওসি থেকে নিম্নপদে কর্মরতদের পদায়নে ঘুষ লেনদেন বন্ধ করতে হবে।

সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের এক পোস্টিং অর্ডারে তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বিপিএম (বার), পিপিএমকে রংপুর জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে বদলী করায় অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক অপরাধ পর্যালাচনা সভায় রেকর্ড ২৩ বার শ্রেষ্ঠ ডিসি নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, গনভবন, মহান জাতীয় সংসদ ভবনসহ আরো অনেক গুরুত্বপূর্ন ও স্পর্শকাতর স্হাপনা যে তেজগাঁও বিভাগে, সেই বিভাগের তেজগাঁও, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল, মোহাম্মদপুর, আদাবর, শেরেবাংলা নগর ও হাতিরঝিল থানা এলাকার লক্ষ লক্ষ মানুষকে নিরাপত্তার চাদরে আবদ্ধ করে রেখেছেন তিনি।

মাদক ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ ও সর্বপ্রকার ক্রিমিনালদের জন্য তিনি হয়ে উঠেছিলেন এক অসহ্য ব্যক্তি। ন্যায় বিচারের প্রশ্নে কর্মস্থলের সীমাবদ্ধতাকে বৃদ্ধাংগুলি দেখিয়ে দিনের পর দিন অসহায়, নিপীড়িত ও নির্যাতিত মানুষকে তাদের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করেছেন বিপ্লব সরকার।

ন্যায়ের প্রশ্নে অধীনস্ত পুলিশকেও বিন্দুমাত্র ছাড় দেন নি তিনি। যখনই শুনেছেন পুলিশ কতৃক জনহয়রানির খবর, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়েছেন। মামলাও হয়েছে পুলিশের বিরুদ্ধে।

জঙ্গীবাদ দমনে ভাড়াটিয়া তথ্য ফর্ম সংগ্রহ পদ্ধতি প্রথম চালু করেছেন তেজগাঁও বিভাগের মোহাম্মদপুর থানায় ২০১৪ সালের শেষের দিকে, যা পরে পর্যায়ক্রমে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সব থানার পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন জেলা ও মেট্রোপলিটনেও চালু হয়েছে।

সেরা ডিসি পুরস্কার গ্রহণ করছেন বিপ্লব সরকার।

শুধু তাই নয়, ছাত্র জীবন থেকে জয়বাংলা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী বিপ্লব সরকার কিশোর তরুণদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়িয়ে দিতে বেশ কিছু উদ্যোগও হাতে নিয়েছেন যা এখনো চলমান। ঠিক এমন সময় তাকে ঢাকার বাইরে সুদুর রংপুরে বদলিকে অনেকেই ‘নির্বাসন’ মনে করছেন।

আজ সারাবেলা/সংবাদ/সিআ/জাতীয়

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.